ওয়ালমার্ট বন্ধ করে দিচ্ছে ২৬৯ টি ষ্টোর

walmart-will-close-269-stores-this-year

সম্প্রতি ওয়ালমার্ট তাদের ২৬৯ টি ষ্টোর বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। বেকার হয়ে যাচ্ছে প্রায় ১৬,০০০ কর্মী। আর্থিক লভ্যাংশ অনেকটা কমে যাওয়ায় ও ষ্টোর গুলো বন্ধ হয়ে যাবার প্রধান কারণগুলো হল, মানুষ আগের মত ষ্টোর এ গিয়ে কেনাকাটায় আগ্রহী না হওয়া, আর ষ্টোর গুলো ছিল লোকালয় এর জনসংখ্যার তুলনায় খুব কাছাকাছি। কোম্পানির মোট লাভের হিসাবে এই ষ্টোর গুলোতে লাভের অনুপাত খুবই কম হওয়ায় এই ধরনের কঠোর সিদ্ধান্তে যেতে বাধ্য হয় তারা।

এদিকে অনেকেই ব্যাপারটি কে রাজনৈতিক ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত করার চেষ্টা করছেন। ষ্টোর গুলোর আশেপাশে ট্যাঙ্ক, হেলিকপ্টার ও অন্যান্য মিলিটারি গতিবিধি তারই কিছু লক্ষণ প্রকাশ করে। ষ্টোর গুলোর আশেপাশের বসবাসকারী লোকজন ও একই কথা বলে। কোম্পানির আর্থিক ক্ষতির কথা মাথায় রেখে এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেয় Walmart কর্মকর্তারা। যদিও তারা আগামী বছর আরও ৩০০ টি ষ্টোর খোলার ঘোষণা দিয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ব্রাজিল ও লাতিন আমেরিকার লোকজন। কারণ, বন্ধ হয়ে যাওয়া বেশির ভাগ ষ্টোর গুলো এই এলাকার আশেপাশেই। তাই বেকারত্বের হার টা অনেকটা এই এলাকা জুড়ে তৈরি হবে।

Walmart বন্ধ হয়ে যাওয়ার সাথে জড়িত হাজার হাজার শিক্ষার্থী যারা অন্য কোন দেশ থেকে পড়াশুনা করতে আমেরিকা তে পাড়ি জমিয়েছে। অনেকেই পড়েছেন বিপাকে। শিক্ষার্থীরা হতাশায় পড়েছেন অনেকেই। আমেরিকানরা যারা পকেট মানি কামানোর জন্য এই ধরনের ষ্টোর গুলোতে ঢুঁ মারতেন তারা এখন নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে হতাশায় ভুগছেন।

ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের জন্য আশাবাদী খবর হল, Walmart তাদের ই-কমার্স ফিচার নিয়ে খুব শীঘ্রই নতুন করে মার্কেট এ আসছে। Amazon এর তুমুল সাফল্য তাদেরকে এ সিদ্ধান্ত নিতে উৎসাহ জুগিয়েছে। তাদের এই সিদ্ধান্তে খুব সহজেই অনুমান করা যায়, ই-কমার্স এর ভবিষ্যৎ মার্কেট আকার কতটা বিশাল হতে পারে। Walmart নতুন নতুন সফটওয়্যার ডিজাইনার ও ইঞ্জিনিয়ার খুঁজতে কোন অংশে Amazon এর চেয়ে পিছিয়ে নেই। খুব শীঘ্রই তাদের অনলাইন কেনাকাটার যত সব প্রস্তুতি শেষ হবে। ই-কমার্স জগতে যোগ দিবে নতুন এক নাম।

২০১৯ সালের মধ্যে অনলাইন কেনাকাটা হবে ৩.৫৫২ ট্রিলিয়ন ডলার যা ২০১৫ সালের (১.৬৭২ ট্রিলিয়ন ডলার) দুই গুনের চেয়ে বেশি। ই-কমার্স কে বলা হচ্ছে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে দ্রুততম বর্ধনশীল ব্যবসা, যা দিনে দিনে ক্রমশ বাড়ছে।

সংগ্রহঃ www.keenlay.com

2 টি মন্তব্য

  1. ই-কমারস এর জন্যে একটা আশাবাদী প্রতিবেদন।ধন্যবাদ।

মন্তব্য পোস্ট করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here