Homeদেশের ই-কমার্সই-ক্যাবের প্রথম ক্রাউডফান্ডিং উদ্যোগ, সাতক্ষীরাশপ ডট কমের জন্য

ই-ক্যাবের প্রথম ক্রাউডফান্ডিং উদ্যোগ, সাতক্ষীরাশপ ডট কমের জন্য

সাতক্ষীরার একজন তরুণ উদ্যোক্তা হাসান রাজ। কম্পিউটার সাইন্সে বিএসসি শেষ করেই ই-কমার্স এর মত সম্ভাবনাময় খাতে নিজেকে একজন উদ্যোক্তা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। পড়ালেখা চলাকালীন সময় থেকেই উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন তিনি।

hasan-raj-1সাতক্ষীরার ছেলে হিসাবে কিভাবে নিজের জেলার বিখ্যাত পণ্যসমূহ দেশ সহ সারা বিশ্বের মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায় সেটা নিয়ে  চেষ্টা করে চলছেন। সেই প্রয়াস থেকেই শত প্রতিকূলতা ও বাধা সত্যেও গত ৮ই জুলাই ই-ক্যাব এর কার্যালয়ে চালু করেন তার  ই-কমার্স সাইট সাতক্ষীরাশপ ডট কম (satkhirashop.com)। যার মাধ্যমে তিনি সুন্দরবনের মধু, খাটি ঘি,  সাতক্ষীরার বিখ্যাত সন্দেশ, মিষ্টি, চিংড়ি ইত্যাদি পণ্য অনলাইনে বিক্রী করেন।

শুরু থেকেই তিনি দেখলেন সবার কাছেই খাঁটি মধু ও ঘি এর চাহিদা প্রচুর এবং বড় বড় কিছু কোম্পানিও তার সাথে যোগাযোগ করতে থাকে। তখন তিনি উপলব্ধি করেন যে খাঁটি দেশী পণ্য নিয়ে ই-কমার্সের ভবিষ্যৎ বেশ উজ্জ্বল। এই বড় বড় কোম্পানিগুলো যখন তার সাথে যোগাযোগ করে তখন একদিকে তিনি যেমন খুশী হন অন্যদিকে দুঃশ্চিন্তায় পরে যান। কারণ একজন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসাবে তার বিশাল কোন মূলধন ছিল না। তাছাড়া কোম্পানিগুলোর শর্ত ছিল সেই পণ্য গুলো বিএসটিআই/সাইন্সল্যাব এর টেস্টে উত্তীর্ণ হতে হবে। কিন্তু সেই ল্যাব টেস্ট করার মতো পর্যাপ্ত টাকাও তার কাছে ছিল না।

তিনি তখন ই-ক্যাব প্রেসিডেন্ট জনাব রাজীব আহমেদ এর শরণাপন্ন হন। ই-ক্যাব তখন প্রথম বারের মতো সাতক্ষীরাশপ ডট কম এর জন্য ক্রাউড ফান্ডিং এর উদ্যোগ নেয় ও ই-ক্যাব এর ফেসবুক গ্রুপে সকলের সহযোগীতা চেয়ে একটি পোস্ট দেয়। অভাবনীয়ভাবে মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে ল্যাব টেস্টের জন্য যে পরিমাণ টাকা দরকার সেই পরিমাণ টাকা উঠে আসে।

“আমি নিজে কখনো কল্পনাও করিনি এত অল্প সময়ে ক্রাউড ফান্ডিং এর মাধ্যমে এত গুলো টাকা তুলে আনা সম্ভব “

সাতক্ষীরা শপ ডট কম এর সিইও জনাব হাসান রাজ বলেন “আমি নিজে কখনো কল্পনাও করিনি এত অল্প সময়ে এত কিছু হয়ে যাবে। এই অল্প সময়ে ক্রাউড ফান্ডিং এর মাধ্যমে এত গুলো টাকা তুলে আনা সম্ভব, মানুষ এতটা হেল্পফুল হবে, এতটা এগিয়ে আসবে কল্পনাও করিনি – আমি অভিভূত! যারা আমাকে এভাবে সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন তাদের সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।”

এ প্রসঙ্গে রাজীব আহমেদ বলেন “ই-ক্যাব সবসময় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে এবং সেই চেষ্টারই একটা অংশ হিসাবে সাতক্ষীরাশপ ডট কম কে আমরা ক্রাউড ফান্ডিং এর মাধ্যমে হেল্প করছি। ভবিষ্যতেও এভাবে ই-ক্যাবের অন্যান্য আরও সম্ভাবনাময় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদেরকে সাহায্য করা হবে।“

satkhirashop-tabহাসান রাজ আরও বলেন “মাত্র তিন ঘণ্টার এই অভিভূত সাড়া থেকে আমি একটি বিষয়  উপলব্ধি করতে পারলাম যে, নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য এই ক্রাউড ফান্ডিং বাংলাদেশের একটি সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র হতে পারে। এটা বাংলাদেশে যদি ঠিক ভাবে কাজে লাগানো যায় তাহলে আমার মতো যারা উদ্যোক্তা আছেন তারা বিশালভাবে উপকৃত হবে।”

হাসান রাজ, একজন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হয়েও সাতক্ষীরার ঘি, সন্দেশ, সুন্দরবনের মধু, চিংড়িমাছ সহ স্থানীয় হস্তশিল্প গুলোকে ই-কমার্স এর মাধ্যমে দেশ সহ সারা বিশ্বে পৌঁছে দেওয়ার স্বপ্ন দেখেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular