Homeসংবাদ বিজ্ঞপ্তিসফট স্কিল ট্রেনিং নিয়ে এলো স্কিলহাব

সফট স্কিল ট্রেনিং নিয়ে এলো স্কিলহাব

আমাদের দেশে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিক্যাল আর ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির জন্য কোচিং এর অভাব নেই। স্কুল কলেজ এর রেগুলার টিউশন নিতেও লাগে প্রাইভেট টিউশনি কিংবা কোচিং সেন্টারের সাহায্য। এই সবগুলো থেকে আমরা কেবল থিউরি শিখি। শিখি একাডেমিক নানা বিষয়। এসবের জন্য কাড়ি কাড়ি টাকা আর বছরের পর বছর সময়ও ব্যয় করি। ফলে ভালো ফলাফল করার পরও ভালো চাকরি বা ক্যারিয়ার এর কথা ভাবতে পারি না।

শিক্ষাজীবন শেষে শুরু হয় হয় আরেক যুদ্ধ। বিসিএস কোচিং, ব্যাংক কোচিং, শিক্ষক নিয়োগ কোচিং, জব কোচিং। এবারে আবার নতুন সিলেবাস, হণুলুলুর প্রধানমন্ত্রীর নাম কি? ফিনল্যান্ডের মুদ্রার নাম কি? যাঁতাকল কে আবিষ্কার করেন? তেলাপোকার বৈজ্ঞানিক নাম কি? মেসির গোল কয়টি, শচিরে শতক কয়টি, এগুলো মুখস্থ করার পর হয়তো বা মিলে যায় একটা ভালো চাকরি। এবার আবার নতুন সিলেবাসের গল্প। শিক্ষাজীবনে সব টপ ডিগ্রিই। চাকরীর পরীক্ষায় শীর্ষস্থান তারপর দেখা গেলো এই মেধাবী কর্মী একটা কোম্পানী প্রোফাইল বানাতে পারেন না। একটা প্রেজেন্টেশন এর জন্য দুইজনকে এসাইন করতে হয়। প্রজেক্ট প্রপোজাল তৈরির ফর্মুলা খুজতেছেন নেটে গিয়ে। একটি বিল তৈরির জন্য তিনি অন্য কোম্পানীর ফরম্যাট খুঁজছেন। ভাউচারের জন্য কোম্পানীর আগের ফাইল ঘাঁটছেন। অফিস লেটার লিখাকে মনে করছেন একবার তাকে দেখিয়ে না দিলে তিনি পারবেন না।

আরো অনেক সমস্যা। অফিসে নিজের কাজের চেয়ে অন্যের কাজ নিয়ে বেশী টেনশন। কাজের চেয়ে টেনশন প্রমোশন নিয়ে। কোম্পানীর সমালোচনা করে টাইম শেষ, কাজ করার সময় কই। একজন আরেকজনরে বিরুদ্ধে। মার্কেটে গিয়ে নিজের কোম্পানীর গুনাগুণ এর চেয়ে অন্য কোম্পানীর দোষ নিয়ে ব্যস্ত।

অফিসের ম্যানার্স, মেজাজ, এটিকেট, কর্পোরেট বিহেভিয়ার, ব্যবসায়িক ডিল সম্পর্কে তার কোনো ধারণা নেই। তখন দাঁতে দাঁত খিঁচেন নিয়োগকর্তা। কর্মী মনে করেন তিনি খুব যোগ্য। কিন্তু এগুলো জানা তার কাজ না। কর্তা মনে করেন তিনি মোটা অংকের স্যালারী দিয়ে সার্ভিস পাচ্ছেন না। বকাবকি। পাল্টাপাল্টি অভিযোগ। কাজের পরিবেশ নষ্ট আর বছর শেষে কোম্পানীতে ধস, অথবা কর্মীর বিদায়।

এই সব সমস্যাগুলোর জন্য কোনো প্রশিক্ষণ নেই। ইন্টার্ন করার সুযোগ এই দেশে খুব সীমিত পুরো বিষয়টাকে মাথায় রেখে স্কিলহাব নিয়ে এসেছে সফট স্কিল ডেভলপমেন্ট ট্রেনিং। গত ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ রাজধানীর কলাবাগানে এমএসএসআইটি ট্রেনিং সেন্টারে স্কিল হাব আয়োজন করেছে ‘‘সেল ইউর সেলফ প্রাউডলি’’ শিরোনামে বিশেষ কর্মশালার। কর্মশালায় ট্রেনার ছিলেন, কাস্টমার কেয়ার বিশেষজ্ঞ জনাব অর্ণব মোস্তফা ও ই কমার্স কনসালটেন্ট জাহাঙ্গীর আলম শোভন।

আলোচ্য বিষয়সমূহ হলো কিভাবে ইন্টার্ভিউর জন্য প্রস্তুতি নেবেন? কিভাবে ইতিবাচকভাবে নিজেকে তুলে ধরবেন। কিভাবে কর্মক্ষেত্রে নিজেকে প্রমান করবেন। এগুলো ছিলো ৩ ঘন্টার ওয়ার্কশপের বিষয়। শীঘ্রই কমিউনিকেশন স্কিল ট্রেনিং নিয়ে আসছে স্কিল হাব।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular